সপ্তাহে কমপক্ষে ৩-৫ দিন ১ ঘন্টা হাটুন/দৌড়ান, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩-৪ লিটার পানি পান করুন।

হাইপোথাইরয়েডিসমের সাথে আমার লড়াইটা বেশ পুরনো

Last Updated on June 23, 2017 by Motu Group Team

হাইপোথাইরয়েডিসমের সাথে আমার লড়াইটা বেশ পুরনো। গত দেড় যুগ ধরে শয়তানটার সাথে যুঝে চলেছি।বিখ্যাত এন্ডোক্রাইনোলজিস্ট ডক্টর হাজেরা মাহতাবের পেশেন্ট আমি সেই তখন থেকেই। এছাড়া সেকেন্ড প্রেগনেন্সিতে GDM মানে (গর্ভকালিন সাময়িক ডায়াবেটিস) ধরা পড়েছিল। যা হোক, দিনে আড়াইটা করে থাইরক্স খেতাম। গত বছরেই ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং করেছিলাম। এরপর ওমাড করেছি, তবে অনিয়মিতভাবে। তবে যাই করিনা কেন দিনে দুইবেলার বেশি গত এক বছরে হাতে গোনা কয়দিন খেয়েছি।আজকে ডক্টরকে রিপোর্ট যখন দেখালাম, উনি মুচকি মুচকি হাসছিলেন। ব্লাড সুগার রিপোর্ট সব নরমাল। TSH কম কিন্তু FT4, FT3 নরমাল। ওনাকে জিজ্ঞেস করলাম আমি IF করি। কোনো প্রবলেম হবে কিনা? বিস্মিত হয়ে উনি পালটা প্রশ্ন করলেন আমি এই ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং এর সম্পর্কে কোথা থেকে জানলাম। আমি বললাম ইউ টিউব। উনি হেসে বললেন, ” অথচ আগে আমরা জানতাম যে কোনোবেলার খাবার বাদ দেয়া যায় না, তাই না? “।আমি সাহস পেয়ে জিজ্ঞেস করে ফেললাম আমি কি IF আর ওমাড করতে পারি? হাইপো থাইরয়েডিযমের উপর ফাস্টিং এর কোনও নেগেটিভ সাইড এফেক্ট আছে? উনি স্পষ্ট করেই বললেন যে, “I don’t think so”.
খুশির খবর যে ওজন কমার জন্যই কিনা জানিনা উনি আমার ওষুধের ( থাইরক্স) মাত্রা কমিয়ে দুইটা করে দিয়েছেন।
তারপরেও একেক জনের শরীর একেক জিনিসে একেকভাবে রিএক্ট করে। তাই হাইপোথাইরয়েডের পেশেন্টরা অাপনারা আপনাদের ডক্টরের সাথে কথা বলে নির্ভয়ে ফাস্টিং করতে পারেন। ফাস্টিং নিয়ে সকল প্রকার ভ্রান্ত ধারণার অবসান হোক।

আমাদের উদ্দেশ্য টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে সঠিক তথ্য দিয়ে সবাইকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলার চেষ্টা করা এবং বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলতে অনুপ্রাণিত করা। আমরা বিশ্বাস করি একজন মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা মানে এর পাশাপাশি তার পরিবারকেও স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা। এভাবে আমরা একদিন দেশের সব পরিবারে সুস্বাস্থ্যের বার্তা পৌঁছে দিতে পারব।

Leave a comment

Leave a Comment

0 Shares
Tweet
Share
Share
Pin