সপ্তাহে কমপক্ষে ৩-৫ দিন ১ ঘন্টা হাটুন/দৌড়ান, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩-৪ লিটার পানি পান করুন।

এক মাস বিয়ে / জন্মদিন/ গেট টুগেদার / রিইউনিয়ন বা অন্য বড় কোন প্রোগ্রাম !!! বফ/গফ কে দ্রুত ওজন কমিয়ে সারপ্রাইজ দিতে চান !!! মাত্র দশ দিনে পাঁচ কেজি ওজন কমাতে চান !!!

Last Updated on April 24, 2021 by Motu Group Team

এক মাস বিয়ে / জন্মদিন/ গেট টুগেদার / রিইউনিয়ন বা অন্য বড় কোন প্রোগ্রাম !!!
বফ/গফ কে দ্রুত ওজন কমিয়ে সারপ্রাইজ দিতে চান !!!
মাত্র দশ দিনে পাঁচ কেজি ওজন কমাতে চান !!!

এমন প্রচারণায় বিশ্বাস করলে বা এমন টার্গেট পূরণ করতে চাইলে মনে রাখুন আপনার কপালে দুর্দিন অপেক্ষা করছে ।

দ্রুত ওজন কমালে আমার শরীরে অন্য রোগ বা সমস্যা দেখা দিতে পারে । যেমন….
১. পিত্তথলিতে পাথর (Gallbladder stone)
২. চামড়া শিথিল হয়ে যাওয়া ( Loose skin)
৩. অতিমাত্রায় দূর্বলতা ( Extreme weakness)
৪. লিভারে চর্বি জমা ( Fatty change in liver)
৫. গেঁটেবাত (Gout)
৬. মাসিকে সমস্যা ( Menstural irregularities)
৭. পানি শূণ্যতা ( Dehydration)
৮. কোষ্ঠকাঠিন্য ( Constipation )
৯. মাথা ব্যথা ( Headache )
১০. চুল পড়া (Hair loss )
১১. অপুষ্টি (Malnutrition )
১২. মাংসপেশী ক্ষয় ( Muscle waste) …প্রভৃতি

তাই দ্রুত ওজন কমানো কোন সুখকর সমাধান না ।
আর সবচেয়ে বাজে ব্যাপার হলো আপনি নাম মাত্র খাবার বা গাছের পাতা/ বাকল/ শিকড় খেয়ে কয় মাস থাকতে পারবেন !!!
কয়দিন পর আপনার Brain (hypothalamus) এর hunger centre দ্বিগুন stimulate হবে এবং আপনার সাইজ ও তখন আগের চেয়ে বিকট আকারে আবির্ভাব হবে।

যারা ১৫ দিন পর একটি মিষ্টি বা এক চামচ চিনি খেয়ে হা হুতাশ করেন তারা একটু সাবধান থাকা ভালো । সুস্হ থাকতে হলে প্রতিদিনের খাবারে carbohydrate, protein,fat, vitamins, minerals, fibre and water থাকা জরুরী ।

আর যারা ওজন কমাতে বিভিন্ন ডিব্বা কোম্পানীর supplement foods/ weight reduction pill ব্যবহার করেন তারা একটু বিস্তারিত জেনে নিবেন খাদ্যমান বা ঔষধের উপাদান সম্পর্কে । তা না হলে পরবর্তীতে আরো খারাপ কিছু অপেক্ষা করবে আপনার জন্য ।

(Sources: Web health/ mayoclinic/ medical books)

আমাদের উদ্দেশ্য টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে সঠিক তথ্য দিয়ে সবাইকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলার চেষ্টা করা এবং বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলতে অনুপ্রাণিত করা। আমরা বিশ্বাস করি একজন মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা মানে এর পাশাপাশি তার পরিবারকেও স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা। এভাবে আমরা একদিন দেশের সব পরিবারে সুস্বাস্থ্যের বার্তা পৌঁছে দিতে পারব।

Leave a comment

0 Shares
Tweet
Share
Share
Pin