সপ্তাহে কমপক্ষে ৩-৫ দিন ১ ঘন্টা হাটুন/দৌড়ান, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩-৪ লিটার পানি পান করুন।

আমার বদলে যাওয়ার গল্প

Last Updated on December 19, 2017 by Motu Group Team

১ম পিকটা ক্লাস 9 এর। তখন আমার ওজন কতো ছিল আমার সঠিক জানা নেই। তবে অনুমান করে নিচ্ছি ৭৮/৮০ এর মধ্যে হবে। আমার মনে হয়,, খাওয়াই আমার জীবন।খাওয়া ছাড়া কিছু নেই জীবনে। চিরদিনতো বাঁঁচবো না। ভাল মন্দ খেয়ে মরে যাব। আছে কি আর জীবনে😜😜….
মানুষ জন অনেক কিছুই বলত।খারাপ লাগতো শুনে।রাগ লাগতো। কিন্তু,,, একটু পরেই সব ভুলে যেতাম। আমার মনে হতো,,, এসব ডায়েট টায়েট আমাকে দিয়ে হবেনা। কিন্তু,,, আমি চিকন হতে চাই। কিভাবে হব!??
সবাই এতো এতো উপদেশ দেয় আমাকে। আম্মু,,, আমাকে নিয়ে মার্কেটে গেলে জিজ্ঞেস করতো,,, চিকন হওয়ার কি আছে আপনাদের কাছে😜😜…….। তারাও কি সব বের করে দিত। আম্মু দেখেই রেখে আসত। কিনত না কিছুই.। টিভিতে কিসব স্লিম বেল্ট দেখাতো। আমি ওখানেও রেখে দিতাম। যাতে আম্মু সুনে আমাকে কিনে দেয়😜😜…… কিছুই কাজ হয়নি। আম্মু বলত খাওয়া কমাতে হবে😎. রেগে যেতাম। কি এমন খাই আমি। শুধু তো তিন বেলা ভাত খাই পেট ভরে😂😂…. তাতেই আমি বেশি খেয়ে ফেলি নাকি।

কলেজে উঠে আমার ওজন ৮০ এর উপরে হয়ে যায়। আমাকে দেখতে ছোটো খাটো না,,,,,, মস্ত বড় বুইরা হাতির মতো লাগতো। কোথাও গেলে,,, সবাই বলত,, বাসার জতো খাবার সব আমি খাই।😒😒….. আমাকে দেখতে সবার থেকে বড় লাগতো।

কলেজ শেষ করে ভার্সিটিতে।এখন,,,, আমার ওজন,,, ৬৪.। মানুষ সব পারে।আমি ডায়েট পারব না। এসব বলে পরে থাকাটা বোকামি ছাড়া আর কিছুই না। ওজন কমালে কতো শান্তি তা আপনি তখন বুঝবেন,,, যখন আপনার পছন্দের কোন জামা আপনার গায়ে লাগছিল না,,, কিন্তু এখন লাগছে।অল্পতেই হাপিয়ে জাওয়ার ফলে যে অস্বস্তি লাগতো,, তার থেকে নিজেকে মুক্ত লাগছে।শারীরিক নানান সমস্যার সম্মুখীন হতেন,,, এখন আর তেমন সমস্যা নেই। যে মানুষ গুলো আপনাকে,,, ভুটকি বলে মজা পেত,, তাদের মুখে তালা পরে গেছে।
সব কিছু আপপনার উপর নির্ভর করে।আপনি পারেন আপনাকে বদলাতে। শুধু ইচ্ছাশক্তি প্রয়োজন। আমার মতো খাদক মানুষ পারলে আপ্নারাও পারবেন। নিজেকে ভালোবাসুন। আর,,,, সুস্থ থাকুন। আমার
জন্যে দোয়া করবেন। শুভকামনা সবার জন্যে।

Leave a comment

Leave a Comment

0 Shares
Tweet
Share
Share
Pin