সপ্তাহে কমপক্ষে ৩-৫ দিন ১ ঘন্টা হাটুন/দৌড়ান, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩-৪ লিটার পানি পান করুন।

Mahfuza Rainy

Last Updated on April 24, 2021 by Motu Group Team

বদলে যাওয়ার জন্যে জীম,ডায়েট চার্ট এসবের প্রয়োজন হয় না.দরকার নিজের তীব্র ইচ্ছাশক্তির…
ছোটবেলা থেকে ই আমি family,friends, relatives সবার কাছে মোটা হিসেবে ই পরিচিত ছিলাম.তাই সব সময় আমার মাথায় ছিল আমি তো মোটা ই,আমি ও শুকাতে পারি ঐ ইচ্ছা টা ই কখনো জাগে নি.কিন্তু নামের পাশে নাদুসনুদুস, মুটকি,ভুটকি উপাধি গুলো কষ্ট দিত.একটা সময় ভাবলাম না আর না.চেষ্টা করলে আমি ও পারব.নিজের মত করে ডায়েট চার্ট তৈরী করলাম আর সাথে শুরু করলাম হাঁটা.
১২০০ ক্যালরি দিনে ইনটেক করতে হবে তা শিখেছিলাম এই গ্রুপ থেকে ই তাই কোন খাবারের ক্যালরি কত জানার জন্যে google করতাম.you tube দেখে zumba করা শুরু করলাম.Stepping,Skipping ও শুরু করলাম.মাঝে মাঝে খুব depression এ ও পরতাম,(weight stuck হয়ে ছিল এর মাঝে কিছুদিন,সবাই ভাল খাচ্ছে দেখলে আমার ও খেতে ইচ্ছে হত,exercise করে শরীর ব্যাথায় কাঁদতাম)তখন এই গ্রুপ এর বদলে যাওয়ার গল্প গুলু পড়তাম আর ভাবতাম না আমাকে ও পারতে হবে.
আলহামদুলিল্লাহ আমি পেরেছি 🙂 ৭৭ কেজি ওজনের বিশাল দেহের হাতি টা এখন ৫৭ কেজি মাত্র তিন মাসে. এই whole journey তে আঠার মত লেগেছিল আমার মা.যখন যা দরকার হত কিনে দিত (exercise এর জুতা,fruits,ডায়েট বান্ধব খাবার).হতাশায় সবসময় অনুপ্রেরণা দিয়েছে আপু.হোস্টেলে পাশে ছিল রুমমেট,বেস্টফ্রেন্ড(বাইরে খেতে না যাওয়া,হোস্টেলে ডায়েট বান্ধব খাবার খাওয়া)
খুব ভালবাসি এই গ্রুপটাকে.দিনে অন্তত একবার হলে ও এফবি তে আসি গ্রুপে সবার আপডেট দেখতে যা এখন আমাকে weight maintain করতে সাহায্য করে.অনেক অনেক ভালবাসা ও আন্তরিক ধন্যবাদ এই গ্রুপের এডমিন ও মেম্বারদের কে.
যারা ভাবেন সময় পান না এত সব এর জন্য অথবা জীম নেই বাসার কাছে,ডায়েট এ কি খাবার খেতে হয় জানেন না,তাদেরকে বলছি নিজেকে নিজে ফাঁকি না দিয়ে,নিজেকে ভালবাসুন.মোটাত্বের অভিশাপ থেকে বেরিয়ে আসুন.আপনার প্রবল ইচ্ছাশক্তি আর আর আপনার পাশের মানুষ গুলুর সহযোগিতা পারে আপনাকে বদলে দিতে.
আমি তো নামের পাশ থেকে মুটকি উপাধি কেটে ফেলেছি,আপনি কাটছেন কবে??

আমাদের উদ্দেশ্য টিম ওয়ার্কের মাধ্যমে সঠিক তথ্য দিয়ে সবাইকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলার চেষ্টা করা এবং বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলতে অনুপ্রাণিত করা। আমরা বিশ্বাস করি একজন মানুষকে স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা মানে এর পাশাপাশি তার পরিবারকেও স্বাস্থ্য সচেতন করে তোলা। এভাবে আমরা একদিন দেশের সব পরিবারে সুস্বাস্থ্যের বার্তা পৌঁছে দিতে পারব।

Leave a comment

Leave a Comment

0 Shares
Tweet
Share
Share
Pin